ঈদের ছুটি চাওয়ায় মেরিল্যান্ডে সকল ধর্মীয় ছুটি বাতিল

Eid holida in US

বাংলা প্রেস, মেরিল্যান্ড থেকে: যুক্তরাষ্ট্রের মেরিল্যান্ড অঙ্গরাজ্যের স্কুলে শিক্ষার্থীদের মুসলমানদের ধর্মীয় ঈদের ছুটি চাওয়ায় তালিকা থেকে সকল প্রকার ধর্মীয় ছুটি বাতিলের নির্দেশ দিয়েছেন ম্যারিল্যান্ড শিক্ষাবোর্ড। গত মঙ্গলবার মোন্টগোম্যারি বোর্ড অব এডুকেশনে নির্বাচনের আগামি বছর বড়দিন, ইস্টার, ইয়ম কিপুর এবং রোশ হাশানাহসহ সব ধরনের ধর্মীয় উৎসবের ছুটি বাতিল করেন। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা বাংলা প্রেস।

স্থানীয় মুসলিম শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা বছরে দুই ঈদের জন্য ছুটি দাবি করেছিলেন। এর প্রেক্ষিতে শিক্ষা বোর্ড গত ১১ নভেম্বর এক সভা আহ্বান করেন। উক্ত সভায় ৭-১ ভোটে স্কুলের কার্যতালিকা থেকে সকল প্রকার ধর্মীয় ছুটির বাতিল করার সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়।

মোন্টগোম্যারি শিক্ষা বোর্ডের এ সিদ্ধান্তের ফলে স্থানীয় মুসলমান ছাড়াও খ্রিষ্টান, ইহুদিরাও হতবাক হয়েছেন। আর এ খবরটি যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষস্থানীয় সকল মিডিয়া ফলাও করে প্রকাশ করেছে। এ প্রসঙ্গে ম্যারিল্যান্ডের প্রবাসী বাংলাদেশি সমাজসেবী ওয়াহেদ হোসেনী বলেন, ‘এ পরিস্থিতির জন্যে বাংলাদেশিরাই দায়ী? কারণ, বাংলাদেশিরা কখনই একই দিনে ঈদ উদযাপন করতে পারে না। স্কুল কর্তৃপক্ষ যদি ঈদের দিন ছুটি ঘোষণা করেও, তাহলে সেটি কীভাবে নির্দ্ধারিত হবে? বাংলাদেশিরা একই দিনে ঈদ উদযাপন করতে পারলে শিক্ষার্থীরা ঐদিন স্কুলে যেত না। ঈদের কারণে অনুপস্থিতির হার বাড়তো। আর তখনই স্কুল কতৃপক্ষ বুঝতে পারতো ঈদ মানে কী?

ডেমক্র্যাটিক পার্টির সক্রিয় এই সংগঠক আরও বলেন, ‘শিক্ষা বোর্ডে যে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে সেখানে চাতুর্যের আশ্রয় নেয়া হয়েছে। ধর্মীয় ছুটি বাতিল করা হয়েছে এটি সত্যি। তবে তারা জুইশ, খ্রিস্টানসহ অন্য ধর্মাবলম্বীদের সকল দিবসে ছুটি ঘোষণা করবে। ধর্মীয় দিবস হিসেবে সেটি প্রকাশ করবে না।’ শিক্ষাবোর্ডের ভোটের সময় মুসলিম সম্প্রদায়ের পক্ষে একমাত্র ভোট প্রদানকারী বোর্ড মেম্বার মাইকেল এ ডুরসো বলেন, এ ধরনের সিদ্ধান্ত গ্রহণের পরিপ্রেক্ষিতে ম্যারিল্যান্ড অঙ্গরাজ্যের নীতি-নৈতিকতা প্রশ্নবিদ্ধ হবে এবং আমরা যে বিরাট একটি ধর্মীয় গোষ্ঠির প্রতি সুবিবেচক হতে পারলাম না তারই বহি:প্রকাশ ঘটলো। যা কোনভাবেই কাম্য হতে পারে না। বোর্ড অব এডুকেশনের এমন সিদ্ধান্ত গ্রহণের প্রতিবাদে শিক্ষা ভবনের বাইরে মুসলমান অভিভাবকেরা মানববন্ধন করেন। তারা বলেন, আমাদের সন্তানদেরও অধিকার রয়েছে ক্রিসমাস, জুইশ হলিডের মত পবিত্র ঈদের দিন ছুটি ভোগের। সেটি দিতে হবে এবং অবিলম্বে এমন হঠকারি সিদ্ধান্ত বাতিল করতে হবে। উল্লেখ্য, নিউইয়র্ক সিটির পাবলিক স্কুলে ঈদের দুদিন ছুটি দাবিতে আন্দোলন চলছে। সিটি মেয়র বিল ডি ব্লাসিয়ো ছুটির পক্ষে মত দিলেও অঙ্গরাজ্য পার্লামেন্টে এখন পর্যন্ত কোন বিল পাশ হয়নি। এমনি অবস্থায় মোন্টগোম্যারি শিক্ষা বোর্ডের এমন আচরণে অভিভাবকরা ক্ষুব্ধ হয়েছেন।

মন্তব্য