ওয়াশিংটনে গির্জায় জুমার নামাজ আদায়

washington charch

বাংলা প্রেস, নিউ ইয়র্ক থেকে (নভেম্বর ১৯, ২০১৪) : যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনের জাতীয় গির্জায় প্রথমবারের মতো জুমার নামাজ আদায় করেছেন স্থানীয় প্রবাসী মুসলমান সম্প্রদায়। গত শুক্রবার উক্ত জুমার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। নামাজ আদায়ের জন্য সর্বস্তরের মুসলমানদের উন্মুক্ত ছিল না। শুধু আমনন্ত্রিত ব্যক্তিরাই নামাজ আদায়ের সুযোগ পেয়েছেন। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা বাংলা প্রেস।

জুমার নামাজ উপলক্ষে গির্জার চারপাশে ব্যাপক নিরাপত্তা বাড়ানো হয়। যাতে অন্য কেউ আসতে না পারে, এ জন্য পুলিশ গির্জা প্রবেশের আগে সবাইকে কঠোর নিরাপত্তা নেয়া হয়। আয়োজকরা জানান, ‘গির্জায় জুমার নামাজ আদায়ের বিষয়টি প্রচার করা হলে বিভিন্নভাবে হুমকি আসতে পারে। এ জন্য বাড়তি নিরাপত্তা নেয়া হয়। কড়া নিরাপত্তার মধ্যেও এক মধ্যবয়স্ক আমেরিকান খ্রিস্টান মহিলা গির্জায় প্রবেশ করে নামাজ আদায়ের বিরোধিতা করে বলেন, ‘গির্জায় নামাজ আদায়ের বিষয়টি নিয়ে এর আগে কোনো ধরনের কথাবার্তা হয়নি, কাউকে জানানো হয়নি’। তিনি বলেন, আমেরিকা খ্রিস্টান নীতির ওপর গড়া। আপনারা এক এক করে গির্জা থেকে বের হয়ে যান। বিক্ষুদ্ধ মহিলাটিকে পরে বের করে দেয় পুলিশ। যীশুর বাণী প্রচারক বিলি গ্রাহামের ছেলে এর প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, ‘মুসলমানদের নামাজ পড়ার জন্য গির্জার দরজা খুলে দেয়া হয়েছে এটা দুঃখজনক। ‘জুমার নামাজের আয়োজক পাদ্রি গিনা ক্যাম্পবেল বলেন, ‘আসুন আমাদের হৃদয়কে তপ্ত করি এবং একই প্রভুর কাছে আমরা ক্ষমা প্রার্থনা করি’। তিনি মুসলামনদের স্বাগত জানিয়ে বলেন, ‘এটা সবার জন্য ইবাদতের জায়গা। নামাজ আয়োজনের নেতৃত্বদানকারী আমেরিকাস্থ দক্ষিণ আফ্রিকার রাষ্ট্রদূত ইব্রাহিম রাসুল বলেন, ‘আমরা সংকটময় সময়ে এ নামাজের আয়োজন করেছি। ভুল বোঝাবুঝি পুরো বিশ্বকে হুমকিতে ফেলে দিয়েছে। গির্জার ভাষনে তিনি বলেন, আমরা যদি হুমকিদাতাদের থামাতে না পারি, তাহলে তারা আমাদের ইবাদতেও বিঘœতার সৃষ্টি করবে’।

মন্তব্য