সন্তানকে বাঁচাতে গিয়ে নিজের জীবন দিলেন এক মা

accident

 

নিউইয়র্ক, এনা: নিজের আদরের সন্তানকে বাঁচাতে গিয়ে আটলান্টায় এক মা নিজের জীবন দিয়েছেন। একটি ট্রাকের আঘাত থেকে এগার বছর বয়সী আলভীকে বাঁচাতে গিয়ে ট্রাকের প্রচন্ড ধাক্কায় মর্মান্তিকভাবে জীবন দিয়েছেন বাংলাদেশী শামসুন নাহার লিপি।

প্রত্যক্ষ দর্শীরা জানান, গত ১০ ডিসেম্বর সকালে আটলান্টার স্টোন মাউন্টেইনে বসবাসকারী বেলায়েত হোসেন রতন ও শামসুন নাহার লিপি দম্পতির জৈষ্ঠ্য পুত্র আলভীকে অন্যান্য দিনের মত দুরাহাম সড়কে স্কুল বাসে উঠিয়ে দেয়ার আগ মুহূর্তে এ মর্মস্পর্শী দুর্ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, ঐ দিন আলভীকে স্কুল বাসে উঠিয়ে দেয়ার জন্য বাস স্টপে যাওয়ার সময় রাস্তা অতিক্রম করতে গেলে আকস্মিকভাবে একটি ট্রাক দ্রুত গতিতে আলভীর সামনে এসে পড়ে। আর সেই মুর্হূতে ছেলেটির ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হওয়া নিশ্চিত দেখে মা দৌড়ে এসে ছেলে আলভীকে পেছন থেকে ধাক্কা দিয়ে রক্ষা করেন কিন্তু ছেলেকে রক্ষা করলেও লিপি নিজেকে রক্ষা করতে পারেননি। ট্রাকের প্রচন্ড ধাক্কায় শামসুন নাহার লিপি ঘটনাস্থলেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন।

অন্যদিকে ছেলে আলভীও মারাত্মকভাবে আহত হয়েছে। তাকে স্থায়ী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, আলভী যেহেতু রাস্তা পারাপারের নির্দিষ্ট জায়গা দিয়ে রাস্তা পার হননি, সে জন্য পুলিশ ট্রাক ড্রাইভারকে গ্রেফতার করেনি। এদিকে শামসুন নাহার লিপির মৃত্যুর খবর স্থায়ী মিডিয়াগুলো ফলাও করে প্রচার করা হয়েছে।

লিপির মৃত্যুতে পুরো বাংলাদেশী কম্যুনিটিতে শোকের ছায়া নেমে আসে। মারাত্মকভাবে আহত আলভীকে স্থায়ী ইউগলস্টন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জানা যায়, রতন ও লিপি দম্পত্তির দ্বিতীয় সন্তান ছয় মাসের শিশু কন্যাকে এক পরিচিত বাংলাদেশী পরিবারের কাছে রেখে বাবা রতন আলভীর জরুরি সার্জারি সম্পন্নের জন্য ছেলের পাশে রয়েছেন।

উল্লেখ্য, রতন লিপি দম্পতির দেশের বাড়ি নারায়ণগঞ্জের আড়াই হাজার উপজেলায়।

মন্তব্য