বিচ্ছেদের ৪৩ বছর পর বিয়ে

remarage

১৯৮৯ সালে জার্মানির এক সেনাঘাঁটিতে তাদের প্রথম সাক্ষাৎ। দু’জনেরই বয়স ছিল ১৮। প্রেমে পড়েন। অতঃপর বিয়ে করেন। তিন সন্তানসহ সংসার করেন দীর্ঘ একযুগ। এরপর বিবাহ বিচ্ছেদ হয়ে যায়।

বিচ্ছেদের পর দু’জনের মধ্যে কোন কথাবার্তা হয়নি। দু’জনেই আলাদা বিয়ে করেন। সম্প্রতি উভয়ের ২য় জীবনসঙ্গী ও সঙ্গিনী মারা গেছেন। বিচ্ছেদের ৪৩ বছর পর আবারও তাদের দেখা। আবারও বিয়ের প্রস্তাব এবং বিয়ের প্রস্তুতি। এমনটাই ঘটেছে ৭৫ বছরের রেনেইট স্টামফ এবং লুইস দেমেত্রিয়াদেসের ক্ষেত্রে।

মিররের এক প্রতিবেদনে হবু এ দম্পতির ঘটনা উঠে এসেছে। লুইস তাদের মেয়ের মাধ্যমে ফেসবুকে নতুন করে যোগাযোগ শুরু করেন রেনেইটের সঙ্গে। গত বছর ডিসেম্বরে আবারও দেখা হয় তাদের। সম্প্রতি সাবেক স্ত্রী রেনেইটকে চমকে দিয়ে তার কর্মস্থলে সবার সামনে বিয়ের প্রস্তাব দেন লুইস।

যুক্তরাষ্ট্রের আরাকানসাস অঙ্গরাজ্যে ফোর্ট স্মিথের ওয়ালমার্টে কাজ করেন রেনেইট। সেখানে রেনেইটের সহকর্মীদের সামনে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে বসেন। সাবেক স্ত্রীকে নতুন করে বিয়ের প্রস্তাব দেয়ার এ দৃশ্য ধারণ করে কেএফএসএস-৫ নিউজ। এতে দেখা যায়, ‘হে সুন্দরী’ বলে রেনেইটের মনোযোগ আকর্ষণ করেন লুইস। এরপর বিশাল আকৃতির একটি কার্ড উঁচিয়ে ধরেন যেখানে লেখা ছিল: ‘হ্যাপি ভ্যালেন্টাইন্স ডে, উইল ইউ ম্যারি মি?’ প্রথমে ‘না’ বলে দেন রেনেইট। পর মুহূর্তেই বাগদানে রাজি হন।

কিন্তু শর্ত জুড়ে দেন একটা। তিনি বলেন, আমি রাজি, কিন্তু আজকের দিনে না! রেনেইট কেএফএসএম-৫ নিউজকে বলেন, গত ডিসেম্বরে আবারও যখন একে অপরকে দেখলাম, তখনই আমরা বুঝেছিলাম, এখনও নিশ্চিতভাবে দু’জন দু’জনকে ভালবাসি। সেই ভালবাসা কখনোই হারিয়ে যায়নি। রেনেইট আরও বলেন, সঙ্গে সঙ্গেই হ্যাঁ বলার ক্ষেত্রে ৪৩ বছরের ব্যবধান অনেক লম্বা একটা সময়। আমি আগে তাকে একটু পরখ করে দেখতে চাই। তবে আমি তাকে বিয়ে করবো কেননা সে একজন ভাল মানুষ।

তিনি আরো বলেন, সৃষ্টিকর্তা আমাদের আবারও একসঙ্গে করেছেন। এ বয়সে বিয়ে নিয়ে কোনো তাড়াহুড়া নেই। -ভোরের কাগজ

মন্তব্য