সিএন টাওয়ারের চল্লিশ বছর পূর্তি

CN

প্রবাসী কন্ঠ ডেস্ক : টরন্টোর প্রধান প্রতীক সিএন টাওয়ারের চল্লিশ বছর পূর্তি হলো গত ২৬ জুন রবিবার। ১৯৭৬ সালে এটি যখন নির্মিত হয় তখন তা ছিল বিশ্বের সর্বোচ্চ টাওয়ার। পরবর্তীতে পৃথিবীর অন্যান্য দেশে আরো কিছু সুউচ্চ ভবন ও টাওয়ার নির্মিত হয় যার মধ্যে কোন কোনটি সিএন টাওয়ারের উচ্চতাকে ছাড়িয়ে যায়। দুবাইয়ের ‘বুর্জ খলিফা’ ভবন তেমনই একটি। তবে পশ্চিম গোলার্ধে ৫৫৩ মিটার উচ্চতার এই সিএন টাওয়ারটি এখনো সর্বোচ্চ উচ্চতা নিয়েই গর্বিত ভঙ্গিতে মাথা উচু করে দাড়িয়ে আছে।

এই টাওয়ারে রয়েছে একটি ঘূর্ণ্যমান রেস্টুরেন্ট। এতে বসে অতিথি বা পর্যটকগণ খাবার গ্রহণের পাশাপাশি শহরের নজরকারা দৃশ্য অবলোকন  করতে পারেন। টাওয়ারে আরো আছে একটি গ্লাস ফ্লোর। এই ফ্লোরে দাড়িয়ে কাচের ভিতর দিয়ে সরাসরি নিচের দৃশ্য দেখা যায়। রাতের বেলা টাওয়ারটি বৈদ্যুতিক আলোর মাধ্যমে নানা রঙ্গে রাঙ্গিয়ে তোলা হয় যা দূরদুরান্ত থেকেও দেখা যায়।

নগরীর সৈন্দর্য বর্ধন ছাড়াও টরন্টোর এই আকনিক টাওয়ারটি যোগাযোগ ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে আসছে এর প্রতিষ্ঠা লগ্ন থেকেই। ১৬ টিরও অধিক টেলিভিশন ও এফএম রেডিও স্টেশন তাদের প্রচারণা চালিয়ে আসছে এই টাওয়ারের এ্যন্টিনা ব্যাবহার করে। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে সেল ফোন কোম্পানীগুলোও এই সিএন টাওয়ারের এ্যান্টিনা ব্যবহার করে আসছে।

১৯৭৩ সালে পনের শ’রও বেশী নির্মান কর্মী এই টাওয়ারটির নির্মান কাজ শুরু করেন। প্রায় চল্লিশ মাস দিন রাত কাজ করে এটি দাড় করানো হয়। টাওয়ারটি আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হয় ১৯৭৬ সালের ২৬ জুন। উদ্বোধনীর দিন তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী পিয়ের ট্রুডো সহ কানাডার আরো অনেক রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। অত্যন্ত জমকালো আয়োজন করা হয়েছিল সেদিন টাওয়ার উদ্বোধনীতে।

টাওয়ারের অভ্যন্তরে নিরাপদে তালাবদ্ধ করে রাখা হয়েছে উদ্বোধনী সময়কার একটি টাইম ক্যাপসুল। ঐ ক্যাসুলে রাখা হয়েছে পিয়ের ট্রুডোর একটি বাণী সহ কানাডার সবকটি প্রভিন্সের তৎকালীন প্রিমিয়ারদের বাণী। কয়েকটি স্কুলের বাচ্চাদের লেখা কিছু চিঠিও আছে ঐ ক্যাপসুলে। আরো আছে টরন্টো স্টার, টরন্টো সান ও গ্লোব এন্ড মেইল পত্রিকার তিনটি কপি যাতে রয়েছে উদ্বোধনীর খবর। সিএন টাওয়ারের শতবর্ষ পূর্তির দিনে খোলা হবে ঐ টাইম ক্যাপসুলটি।

সিএন টাওয়ার এর নামটি নেয়া হয়েছিল কানাডিয়ান ন্যাশনাল রেলওয়ে কোম্পানী থেকে। ১৯৯৫ সালে আমেরিকান সোসাইটি অব সিভিল ইঞ্জিনিয়ার্স সিএন টাওয়ারকে ‘সেভেন ওয়ান্ডারর্স অব দি মডার্ন ওয়ার্ল্ড ’ এর তালিকাভুক্ত করে।

মন্তব্য