অানন্দঘন পরিবেশে কানাডার সাস্কাচুয়ানে বঙ্গবন্ধু’র জন্মদিন উদযাপিত

03_Cake for Bangabandhu's Birthday

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের ৯৮তম জন্মদিবস ও জাতীয় শিশু দিবস, ২০১৭ উদযাপন উপলক্ষে কানাডাস্থ বাংলাদেশ হাই কমিশনের উদ্যোগে সাস্কাচুয়ান প্রদেশের রাজধানী রেজাইনাতে শিশুদের চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয় গতকাল ১২ মার্চ তারিখে। প্রেইরী অঞ্চলের সাস্কাচুয়ানে বসবাসরত বাংলাদেশী বংশোদ্ভুত শিশুদের জন্য এ দিনটি ছিলো আনন্দ, উতসাহ ও উদ্দীপনার। বিপুল সংখ্যক শিশু এবং অভিভাবকবৃন্দের উপস্থিতিতে শিশুদের সাথে কেক কেটে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন পালন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি, কানাডায় নিযুক্ত বাংলাদেশের মান্যবর হাই কমিশনার, মিজানুর রহমান। এ সময় দূতাবাসের প্রথম সচিব (পাসপোর্ট ও ভিসা) সাখাওয়াত হোসেন, প্রথম সচিব (বাণিজ্যিক) দেওয়ান মাহমুদ, প্রথম সচিব (কন্সুলার) অপর্ণা পাল এবং প্রশাসনিক কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম, ব্যক্তিগত কর্মকর্তা জাকির হোসেন ও কনসুলার সহকারী কর্মকর্তা কামাল হোসেন উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে সার্বিক সহযোগিতা প্রদান করে বাংলাদেশ-কানাডা এ্যাসোসিয়েশন অব রেজাইনা।

02_H.E

বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে হাই কমিশনার মিজানুর রহমান বলেন, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালী বঙ্গবন্ধু, অামাদের জাতির পিতা।কিন্তু ভাবতেই কষ্ট হয় যে, জাতির পিতার হত্যাকারী এই কানাডাতেই অাছে। তাকে দেশে ফেরত পাঠিয়ে বিচারের রায় কার্যকর করার জন্য সরকারী কূটনৈতিক প্রচেষ্টা চলমান রয়েছে। সেই সাথে অাপনারা, বাংলাদেশী প্রবাসীরা স্ব-স্ব এলাকায় কানাডার সংসদ সদস্যদদের প্রতি জোর দাবী তুলুন যেন তারা এ খুনীকে বাংলাদেশে ফেরত পাঠায়। শত শত গণস্বাক্ষর সংগ্রহ করে অাপনাদের এমপিদের দিন, তাদের বাধ্য করুন তাদের পার্লামেন্টে এ বিষয়টি উত্থাপন করতে। তিনি বলেন, “বঙ্গবন্ধুর খুনীর জন্য কানাডা সেফ হেভেন হতে পারে না।” এ কথায় হলভর্তি উপস্থিত প্রবাসীরা হাই কমিশনারের প্রতি সর্বাত্মক সমর্থন জ্ঞাপন করেন।

অনুষ্ঠানে অারও বক্তব্য রাখেন সাস্কাচুয়ান প্রাদেশিক সরকারের প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরের সিনিয়র ইকনমিস্ট ড. ওসমানুর রহমান, প্রবীন চিকিতসক ডা. বি. দত্ত, ডা. অাশীষ পাল, এবং ডা. জামান। অনুষ্ঠান সঞ্চালন করেন মাসুদুল অাবেদীন। এরপর বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে গান পরিবেশন করেন শিল্পী পিনু সাত্তার ও শিশুদের দল। “শোন একটি মুজিবরের থেকে লক্ষ মুজিবরের কণ্ঠস্বরের ধ্বনি, প্রতিধ্বনি, অাকাশে-বাতাসে ওঠে রণি …” এ গানের মন মাতানো কণ্ঠের সাথে সুর মিলিয়ে শিশুরা সমস্বরে প্রতিধ্বনিত করে “বাংলাদেশ, অামার বাংলাদেশ”। এক ভিন্ন অামেজে সকলে স্মরণ করে জাতির পিতা, ইতিহাসের মহানায়ক, বঙ্গবন্ধুকে। “অামি বাংলায় গান গাই” – গানটির সাথে অসাধারণ গীতিনৃত্য পরিবেশনার দ্বারা সকলকে মুগ্ধ করেন নৃত্যশিল্পী ও শিক্ষক ইভা পিটারসন এবং তাঁর ছাত্র-ছাত্রী একদল শিশু। গান পরিবেশন করেন হাই কমিশনের প্রথম সচিব সাখওয়াত হোসেন। কবি অন্নদা শঙ্কর রায়ের কালজয়ী কবিতা “বঙ্গবন্ধু” আবৃত্তি করেন হাই কমিশনের প্রথম সচিব দেওয়ান মাহমুদ।

06_Children performing celebrating Bangabandhu's birth day in Regina

অনুষ্ঠান সমন্বয় করেন বাংলাদেশ হাই কমিশনের প্রথম সচিব অপর্ণা পাল এবং বাংলাদেশ-কানাডা এ্যাসোসিয়েশন অব রেজাইনা’র পরিচালনা কমিটির সদস্য সাইদ মুন্সী। এ্যাসোসিয়েশনের সদস্যবৃন্দ সার্বিক সহযোগিতা প্রদান করেন।

এরপর “বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন, বাংলাদেশের খুশির দিন” এবং “সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালী বঙ্গবন্ধু” -এ দুইটি বিষয়ের উপর শিশুদের অঙ্কিত চিত্রকর্ম ঘুরে দেখেন বাংলাদেশের হাই কমিশনার, দূতাবাসের কর্মকর্তাগণ ও অতিথিবৃন্দ। উল্লেখ্য, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের জন্মদিন উদযাপনের সাথে সাথে রেজাইনাতে প্রথমবারের মতো তিন-দিনব্যাপী কনসুলার সেবাও প্রদান করছে বাংলাদেশ হাই কমিশন। এতে রেজাইনাপ্রবাসী বাংলাদেশীদের মাঝে ব্যাপক উতসাহ-উদ্দীপনা বিরাজ করছে। সার্বিকভাবে এ উদ্যোগের জন্য হাই-কমিশনের প্রতি সন্তোষ প্রকাশ করেন বাংলাদেশী কমিউনিটির সদস্যগণ।

04_Children performing songs on Bangabandhu in Regina, Saskatchewan

উল্লেখ্য, প্রটোকল ভিজিট, বাণিজ্য সম্প্রসারণ ও শিক্ষা সহযোগিতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সাস্কাচুয়ান প্রাদেশিক সরকারের প্রিমিয়ার ব্র্যাড ওয়াল এবং বাণিজ্য, কৃষি, উচ্চশিক্ষা বিষয়ক মন্ত্রী ও উর্দ্ধতন সরকারী কর্মকর্তাসহ ব্যবসয়ী নেতৃবৃন্দের সাথে বৈঠক করেছেন বাংলাদেশের হাই কমিশনার মিজানুর রহমান ও প্রথম সচিব (বাণিজ্যিক) দেওয়ান মাহমুদ। গুরুত্বপূর্ণ এ বৈঠকসমূহেও বঙ্গবন্ধুর খুনী নূর চৌধুরীকে বাংলাদেশে ফেরত পাঠানোর বিষয়ে জোর দাবী উত্থাপন করেছেন বাংলাদেশের হাই কমিশনার। -সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

মন্তব্য