টরন্টোতে চলচ্চিত্র উৎসবের সংগঠক আনোয়ার আজাদ এবার আতœপ্রকাশ করলেন প্রযোজক হিসেবে

Anwar Azad

প্রবাসী কন্ঠ রিপোর্ট ॥ কানাডার জনপ্রিয় ও মর্যাদাকর দক্ষিণ এশীয় চলচ্চিত্র উৎসবের অন্যতম সংগঠক বাংলাদেশী কানাডিয়ান আনোয়ার আজাদ এবারে আতœপ্রকাশ করতে যাচ্ছেন একজন প্রযোজক হিসেবে। ১১ থেকে ২২ মে পর্যন্ত টরন্টো, মিসিসাগা সহ বিভিন্ন সিটিতে অনুষ্ঠিতব্য ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভাল অব সাউথ এশিয়ার উদ্যোগে ষষ্ঠ দক্ষিণ এশীয় চলচ্চিত্র উৎসবে আনোয়ার আজাদ প্রযোজিত ও আশরাফ শিশির পরিচালিত ছবি ‘গোপন’ নর্থ আমেরিকান প্রিমিয়ার হিসেবে প্রদর্শিত হচ্ছে। এর আগে ছবিটি ভারতের দিল্লী ও নেপালের কাঠমুন্ডুতে প্রদর্শিত হয় এবং পুরষ্কারও পেয়েছে।

উল্লেখ্য, এবারের চলচ্চিত্র উৎসবে জনাব আজাদ বাংলা বিভাগের প্রধান সমন্বয়কারীর দায়িত্ব পালন করছেন। এবং এই উৎসবের গোড়ার থেকেই একজন সংগঠক হিসেবে তার বিশেষ ভূমিকা রাখছেন। সেইসঙ্গে বাংলাদেশের ছবি এই উৎসবে প্রদর্শনের ব্যাপারে প্রশংসনীয় উদ্যোগ নিয়েছেন।

‘গোপন’ ছাড়াও এই উৎসবে ফখরুল আবেদীন পরিচালিত ‘ভুবন মাঝি’, বিজন ইমতিয়াজ পরিচালিত ‘মাটির প্রজা’, আবদুল্লাহ্ সাদ পরিচালিত ‘লাইভ ফ্রম ঢাকা’ প্রদর্শিত হবে বলে উৎসব কমিটির সূত্রে জানা গেছে।

The-Inner-Soul

আনোয়ার আজাদ বলেন, পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র হিসাবে বাংলাদেশের এই ‘গোপন’- এর অংশগ্রহণ আমাদের জন্য সত্যিই আনন্দের। আমি চাই বাংলাদেশের চলচ্চিত্র সারা পৃথিবীতে  ছড়িয়ে পড়ুক। থ্রিলারধর্মী এ ছবিটিতে আন্ডারগ্রাউন্ড পলিটিক্সে জড়িয়ে যাওয়া এক পিতা, তার হারিয়ে যাওয়া স্ত্রী এবং একমাত্র কন্যাসন্তানের বিবর্তন, একজন জনপ্রিয় লেখিকার জীবনে মনস্তাত্বিক অসহায়ত্বের মাঝে একজন ফ্লপ ছবির নির্মাতার আগমন কিভাবে কয়েকটি খুন আর নতুন কিছু স্বপ্নের জন্ম দেয় তা দেখানো হয়েছে। ভারতের জনপ্রিয় ঔপন্যাসিক কাবেরী রায়চৌধুরী, ‘নন্দিত নরকে’ খ্যাত সুমনা সোমা, সুপার হিরো সুপার হিরোইনখ্যাত ইমরান ইমু ছাড়াও এ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন লাবন্য ক্যাটরিনা, আনন জামান, সিরাজুল ইসলাম, সৌরভ তোফাজ্জল, আবুল কালাম আজাদ, মান্নাফ কাইজার, দেবীপ্রসাদ, মিলা, দীপ, উজ্জ্বল, ফেরদৌস  রেজা, রুদ্রনীল, শুভ সহ চারশ’ নাট্যকর্মী। শিশুশিল্পীরা হলো রাজকন্যা, দূর্বা, কিন্নর ও রনন। চলচ্চিত্রটির সংগীত পরিচালনা করেছেন রাফায়েত নেওয়াজ এবং চিত্রগ্রহণ ও সম্পাদনা করেছেন সাব্বির মাহমুদ। এ ছবির ‘এখনও আমার দিন কাটে’ শীর্ষক একটি গানে সুর ও সংগীতায়োজন করেছেন ভারতের নীলাদ্রি ব্যানার্জি। ২০১৫ সালের জুন মাসে ছবিটির শুটিং সম্পন্ন হয়।

প্রবাসী কন্ঠের সঙ্গে এক সাক্ষাতকারে আনোয়ার আজাদ আরও বলেন, জুলাই মাসে আমার আরও একটি প্রযোজিত ছবি ‘মুখ ও মুখোশে’র ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার করার ইচ্ছে আছে। ছবিটি পরিচালনা করেছেন গোলাম মোস্তফা শিমূল। অভিনয় করেছেন কাজী রাজু, দীপান্বিতা মার্টিন, নোভা চৌধুরী ও খায়রুল আলম সবুজ।

আনোয়ার আজাদ আরও জানান, ভবিষ্যতে এই উৎসবের অন্যান্য সংগঠকদের সাথে যৌথ প্রযোজনার ছবিতে কাজ করার ইচ্ছে আছে।

উল্লেখ্য, উৎসবে দক্ষিণ এশিয়ার বিভিন্ন দেশের পনেরোটি ভাষায় প্রায় শতাধিক ছবি প্রদর্শিত হবে বলে উৎসব কমিটির সূত্রে জানা গেছে।

মন্তব্য