টরন্টো ক্রমশই হাইরাইজ সিটি হয়ে উঠছে, কমছে বাড়ির সংখ্যা: শুমারির তথ্য

টরন্টোতে ২০১১ সালের তুলনায় বিচ্ছিন্ন বাড়ির সংখ্যা কমেছে পাঁচ হাজার, আর ৪৪ শতাংশ পরিবার থাকে হাইরাইজ ভবনে

টরন্টোতে ২০১১ সালের তুলনায় বিচ্ছিন্ন বাড়ির সংখ্যা কমেছে পাঁচ হাজার, আর ৪৪ শতাংশ পরিবার থাকে হাইরাইজ ভবনে

ডেভিড হেইন্স, মেট্রো : সর্বশেষ শুমারির হিসাব অনুযায়ী টরন্টোতে বিচ্ছিন্ন বাড়ির সংখ্যা কমেছে, অন্যদিকে হাইরাইজ ভবনের সংখ্যা রকেট গতিতে বাড়ছে।
এটি হচ্ছে ঘটনার একটি দিক। তবে সাম্প্রতিক কয়েক দশকে একক পরিবারের বসবাসের উপযোগী বিচ্ছিন্ন বাড়ির সংখ্যা নিশ্চিতভাবেই কমেছে।
স্ট্যাটিস্টিকস কানাডার বিশ্লেষক জেফ র‌্যান্ডল বলেন, “টরন্টোতে বেশ কিছুদিন ধরে পরিবর্তনের এই প্রক্রিয়া চলছে।”
গত বছরের শুমারি অনুযায়ী, টরন্টোতে ২০১১ সালের তুলনায় ২০১৬ সালে বিচ্ছিন্ন বাড়ির সংখ্যা পাঁচ হাজার কমেছে। একই সময়ের মধ্যে শহরে অতিরিক্ত ৬৪ হাজার হাইরাইজ ভবন গড়ে উঠেছে।
স্ট্যাটসক্যান-এর তথ্যমতে, টরন্টোর ৪৪ শতাংশ পরিবার এখন হাইরাইজ ভবনের বাসিন্দা। ৫০ হাজার বা তার বেশি জনসংখ্যা অধ্যুষিত শহরগুলোর মধ্যে এই সংখ্যা সর্বোচ্চ।
বর্তমানে টরন্টোর ৬৬.৩ শতাংশ বাড়ি হচ্ছে অ্যাপার্টমেন্ট ভবন। আর মাত্র ২৪.২ শতাংশ হলো বিচ্ছিন্ন বাড়ি।
রিয়ারসন ইউনিভার্সিটির সিটি বিল্ডিং ইন্সটিটিউটের নীতি ও গবেষণা সম্পর্কিত ব্যবস্থাপক গ্রাহাম হেইন্স বলেন, আগের বিভিন্ন সমীক্ষা এবং জনগণ তাদের চারপাশে চলমান যেসব নির্মাণকাজ দেখতে পাচ্ছে তার ভিত্তিতে শুমারির তথ্য অনেকটাই নিশ্চিত; টরন্টোর ক্রমবিকাশমান হাউজিং মার্কেট সম্পর্কে মানুষ যা আগে থেকেই জানে।
তবে, তিনি বলেন, এটি আরেকটি লক্ষণ যে, নীতিনির্ধারকদেরকে বিচ্ছিন্ন বাড়ির বিষয়টি বাদ দিয়েই চিন্তাভাবনা করতে হবে।
তিনি বলেন, “যেটা সম্ভব সেই ধরণের উন্নয়ন ঘিরেই নীতিমালা প্রণয়ন করতে হবে।” তার এই বক্তব্য চলমান রাজনৈতিক সংলাপের মূল সুরের বিপরীত। সংলাপে এখনও বিচ্ছিন্ন একক পরিবারের বাড়ির স্বপ্নকে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে।
টরন্টোবাসী ক্রমবর্ধমান হারে অ্যাপার্টমেন্ট কিনছে।
নগরায়ন সম্পর্কিত এক জরিপে দেখা গেছে, ২০১৭ সালের প্রথম তিন মাসে গত বছরের একই সময়ের তুলনায় কন্ডো অ্যাপার্টমেন্টের বিক্রি বেড়েছে ৭৩ শতাংশ।
শুমারির তথ্যে অবশ্য আলাদা করে বলা হয়নি কোন বাড়িগুলি কন্ডো আর কোনগুলি ভাড়ার অ্যাপার্টমেন্ট।
কাউন্সিলর জস ম্যাথিউ স্বীকার করেন যে, নগর কর্তৃপক্ষের উচিৎ এমন নীতিমালার ওপর বেশি করে আলোকপাত করা যা অ্যাপার্টমেন্টে বসবাসকারী লোকদের জীবনযাত্রাকে প্রভাবিত করে। এক্ষেত্রে যেসব গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের প্রতি মনোযোগ দিতে হবে তার মধ্যে তিনি উচ্চহারে ভাড়া, বাসিন্দাদের অধিকার এবং স্থানীয় অবকাঠামোর ওপর উন্নয়নের যে চাপ রয়েছে সেগুলোর কথা উল্লেখ করেন।
তবে তিনি মনে করেন, অনেক কাউন্সিলরেরই এখনও নগরীর পরিবর্তনের দিকে চিন্তাভাবনার মোড় ফেরানোর ক্ষেত্রে আরও অগ্রগতি অর্জনের প্রয়োজন রয়েছে। অ্যাপার্টমেন্ট ও উন্নয়নের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “সার্বিকভাবে আমার মনে হয় না এই বিষয়ে তাদের (কাউন্সিলরদের) মনোযোগ আকৃষ্ট হয়েছে। তবে তারা বিষয়টি অবশ্যই অনুধাবন করবেন।”

মন্তব্য